বৈশ্বিক মহামারীতেও রেমিটেন্স যোদ্ধাদের দেশের প্রতি মানবতা

প্রকাশিত: ৪:১৩ পূর্বাহ্ণ, মে ১১, ২০২০

কুমিল্লা জেলা প্রতিনিধি: গত ১০মে ২০২০ইং রবিবার কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলায় বটতলী ইউনিয়নের সকল প্রবাসী বাংলাদেশীদের আয়োজনে প্রায় ১০০০ এক হাজার কর্মবিমুখ অসহায় মানুষকে ত্রাণ ও ঈদ সামগ্রী উপহার হাতে তুলে দেয়া হয়েছে। এবং প্রত্যেক পাড়া মহল্লার মসজিদের ইমাম মোয়াজ্জেমকে ও একই হাদিয়া প্রদান করা হয়।

বিগত ১৫দিন যাবৎ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং অনলাইনে ইউনিয়নের প্রত্যেক প্রবাসীদের একত্রিত করে একটি কল্যাণ ফান্ড গঠন করা হয়। এতে দেশের দানশীল সমাজিক ব্যক্তিবর্গরাও অংশগ্রহণ করেন। পরিকল্পনার প্রধান উদ্যোক্তা কুমিল্লা জেলা প্রাইভেট পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ইতালি প্রবাসী জনাব শাহ আমানত উল্লাহ রাজু, পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করেন,কেন্দ্রীয় প্রাইমারি শিক্ষক সমিতির এসোসিয়েশনের সদস্য, নাঙ্গলকোট উপজেলা প্রাইমারি শিক্ষক সমিতির সেক্রেটারী জনাব মোঃ নিজাম উদ্দিন বিএসসি।
এদের মধ্যে যারা মোটা অংকের অর্থ সহায়তা করেছেন তারা হচ্ছেন,
শাহ আমানত উল্লাহ রাজু (ইতালী) মুহাম্মদ ওসমান গনি ভূঁইয়া রাসেল (আমেরিকা) মো: আশরাফুল আলম, (সৌদি আরব) মোহাম্মদ শাহজাহান সাজু (সৌদি আরব) মোহাম্মদ হারুন সোহাগ(প্রবাসী) মোঃ নাসির উদ্দিন (মালয়েশিয়া) স্থানীয় সাবেক মেম্বার আবু ইউসুফ (বাহরাইন) এনাম হোসেন লক্ষীপুরী (সৌদি আরব) সিরাজুল আলম লিটন,(প্রবাসী) জয়নাল আবেদীন (প্রবাসী)এজিএম রহমান গোলাফ (প্রবাসী) মিজানুর রহমান ভুঁইয়া (সৌদি আরব) ইউসুফ সোহেল (বাহরাইন) মোঃ নজরুল ইসলাম খান (আয়ারল্যান্ড) উপজেলা যুবলীগের সহ সভাপতি মোঃআবুল খায়ের বিএসসি, স্থানীয় উপজেলা ছাত্রলীগের সেক্রেটারি ওমর ফারুক মামুন, এবং এলাকার তরুণ চিকিৎসক ডা.আবদুল মমিন মজুমদার সহ প্রত্যেক গ্ৰামের অসংখ্য রেমিটেন্স যোদ্ধা।
সকাল ১০ ঘটিকায় স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে সকল ওলামায়ে কেরাম এর উপস্থিতিতে বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস থেকে মানবতার শান্তি এবং সকল প্রবাসীদের মঙ্গল ও সুস্থতার জন্য দোয়ার আয়োজন করা হয়। এতে প্রবাসী রেমিটেন্স যোদ্ধাদের স্বাগত জানিয়ে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জনাব রফিকুল হোসেন সাহেব, স্থানীয় চেয়ারম্যান জনাব মাষ্টার এনকেএম সিরাজুল আলম, নিজাম উদ্দিন বিএসসি বলেন বটতলী প্রবাসী ফোরাম ও স্থানীয় বিত্তশালীদের যৌথ পাশাপাশি আমাদেরও দায়িত্ব রয়েছে। করোনা-মহামারী কালে নিম্নবিত্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানো আমাদের নৈতিক দায়িত্ব।
মহৎ উদ্যোগ বাস্তবায়নের জন্য বটতলী ইউনিয়নের রেমিটেন্স যোদ্ধা এবং স্থানীয় উদারমনা বিত্তশালীদেরকে আমি আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। সেই সাথে স্ব স্ব এলাকার কর্মহীন-হতদরিদ্র পরিবার ও সম্মানিত ইমামদের পাশে থাকার জন্য আমি সকল বিত্তশালীদের প্রতি উদার্থ আহবান জানাচ্ছি।
প্রত্যেক ওয়ার্ডে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে গ্রামে পাড়া-মহল্লায় সারাদিনে প্রত্যেকের ঘরে ঘরে গিয়ে এই ত্রাণ উপহার সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়। ভবিষ্যতে যে কোন ধরনের দুর্যোগ মোকাবেলায় এই প্রবাসীদের প্রতিশ্রুতি খুবই প্রশংসনীয় হয়ে উঠেছে।
বাংলাদেশে এরকম প্রত্যেকটা এলাকায় প্রবাসীরা সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলে অসংখ্য হতদরিদ্র মানুষ সুখে থাকবে বলে আশা করা যায়।